Breaking News

আমার ৯ বছরের ছেলে

কয়েকদিন আগে হাটে হাঁড়ি ভাঙেন যশ দাশগুপ্তর প্রাক্তন স্ত্রী শ্বেতা সিংহ কালহানস। বিয়ে-সন্তান নিয়ে কথা বলেন তিনি। এদিকে গতকাল জানা গেছে, নুসরাতের পুত্র ঈশানের বাবাও যশ। সব কিছু মিলিয়ে শোবিজ অঙ্গনে বহুল চর্চিত নাম যশ। এবার নিজেই প্রথম বিয়ে-সন্তান নিয়ে মুখ খুললেন এই অভিনেতা।

ছোট পুত্র ঈশান প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বড় পুত্রকে নিয়ে কথা বলেন যশ। ফোকাস কলকাতাকে এই অভিনেতা বলেন—‘ঈশান খুব ছোট। সবে ১৫ দিন বয়স। এত তাড়াতাড়ি কিচ্ছু পরিবর্তন হয় না। আমার ছেলে আছে, যার বয়স ৯ বছর হয়ে গেছে।

জন্ম সনদ সূত্রে নুসরাত পুত্রের পিতৃপরিচয় জানা গেছে। কলকাতা পৌরসভার ওয়েবসাইটে জন্ম সনদে দেখা যায়—নুসরাত পুত্রের নাম ঈশান দাশগুপ্ত। বাবার নাম দেবাশিস দাশগুপ্ত (এটি যশের সার্টিফিকেট নেম) ওরফে যশ। মায়ের নাম নুসরাত জাহান রুহি। যার রেজিস্ট্রেশন নম্বর ১৬২৩। তবে এ বিষয়ে কিছু বলেননি যশ।

যশ যখন মুম্বাইয়ে কাজ করতেন তখন শ্বেতাকে বিয়ে করেন। এ সংসারে জন্ম নেয় যশের প্রথম সন্তান। শ্বেতা মুম্বাইয়ে থাকেন। কিন্তু পুত্র যশের সঙ্গে কলকাতায় থাকে। তবে ছেলেকে এখনো প্রকাশ‌্যে আনেননি এই অভিনেতা। বেশ আগে শ্বেতার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে যশের।

রোশনের ২ পোস্টে আবেগী হয়ে যা লিখলেন শ্রাবন্তী
টালিউডের কনট্রোভার্সি কুইন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। তিনি যা করেন তা নিয়েই একশ্রেণির নেটিজেন বিতর্কে মাতেন। এ নিয়ে নায়িকার স্বগোক্তি- ‘আমি যা করি সেটাই দেখি খবর হয়ে যায়’।

অবশ্য এ জন্য এ নায়িকা নিজেই দায়ী। ব্যক্তিজীবনে এ পর্যন্ত বিয়ে-বিচ্ছেদের খবরে কতবার শেষে সংবাদ শিরোনামে এসেছেন তার হিসেব নেই।

সর্বশেষ বিচ্ছেদ ঘটনা রোশন সিংয়ের সঙ্গে।

গত এক বছর ধরে আলাদা থাকছেন রোশন-শ্রাবন্তী। কিন্তু শ্রাবন্তীর সঙ্গে আবারও সংসার করতে মরিয়া রোশন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট দিয়ে শ্রাবন্তীর অভাববোধটা বুঝিয়ে দেন তিনি। ফের সংসার করতে চেয়ে মাস দুয়েক আগে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন রোশন।

তবে রোশনের সেসব পোস্ট ও তর্জনগর্জনে বরাবরই নীরব থেকেছেন শ্রাবন্তী।

তিন দিন আগে রোশন তার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে যুগলদের ভিড়ে একা দাঁড়িয়ে থাকা এক যুবকের ছবি পোস্ট করে লেখেন, ‘মাই কণ্ডিশন’।

রোশন বোঝাতে চাইছেন, শ্রাবন্তীকে ছাড়া তিনি বড় একা!

এরপর গত বুধবার প্রয়াত বলিউড অভিনেত্রী সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে নিজের ছবি শেয়ার করেন রোশন।

প্রয়াত এ তারকার ছবিটি দিয়ে রোশন বোঝাতে চাইলেন, সুশান্তের মতো তিনিও নিঃসঙ্গ। সুশান্তের মতো হতাশা, অবসাদে ডুবে যাচ্ছেন তিনি। নিজেকে শেষ করেও দিতে পারেন সুশান্তের মতো!

রোশনের ওই দুটি পোস্টের পরই একটু যেন নড়েচড়ে বসলেন শ্রাবন্তী। আবেগী হয়ে পড়লেন, যা ছুঁয়ে গেল এ নায়িকাকে।

বুধবার রাতেই একটি ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট শেয়ার করলেন শ্রাবন্তীও। তিনি একটি ছবি পোস্ট করেছেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, ঠোঁটে আঙুল রেখে কাউকে চুপ থাকার ইশারা করছেন।

ক্যাপশনের যথেষ্ট অর্থপূর্ণ বাক্য লিখেছেন, ‘বুঝেছি, তুমি নীরবতার মানে বুঝতে শুরু করেছ। এর থেকে শিক্ষাও নিচ্ছ। নীরবতারও নিজস্ব অর্থ এবং আলাদা মাত্রা রয়েছে।’

Check Also

সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার বাবা

ঘটনাটা মাত্র সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার। এই পাঁচ ঘণ্টার ঘটনা লিখতেই যখন এত শব্দ লাগল, তাহলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.