৯ বছর নিঃসঙ্গতায় কাটানোর পর সিদ্ধান্ত নিয়েছি- মুখ খুললেন ইভা

ইভা রহমান মাহফুজুর রহমানের স্ত্রী ছিলেন, মাহফুজুর রহমানের টেলিভিশন চ্যানেলে চাকুরী নেয়ার পর দুজনের মধ্যে ভালবাসার জন্ম নেয় পরে বসেন বিয়ের পীড়িতে। ২০০৩ সালে ১৩ আগস্ট ১১ মাহফুজুর রহমানের সাথে বিয়ে হয়। এরপর ২০০৬ সালে ১৭ জুন তাদের একটি

পুত্র সন্তান হয়। সন্তানের নাম মারুফ। ২০১২ সাল থেকে মাহফুজুর রহমান এবং ইভা আলাদা থাকা শুরু করেন। এক সাক্ষাৎকারে ইভা বলেন চেষ্টা করেছি মাহফুজুর রহমানের সাথে মানিয়ে নিয়ে সংসার টিকাতে আমি আমার ছেলে গুলাশানে থাকতাম গুলাশানে আমার বাসা আর উনি

বনানিতে থাকতেন। লাস্ট ৯ বছর আমরা আলাদা থাকি আমার কাছে মনে হলো এভাবে ঝুলিয়ে রেখে কোন সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা যায়না। এই নয় বছরে আমি চেষ্টা করেছি আমাদের মধ্যে সম্পর্ক আবার ঠিক হোক কিন্থু আমি ওইদিক থেকে কোন সাড়া পাইনি। আমার পক্ষে মনে হল

একটা সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। এত অবহেলা করে সংসার টিকানো যায়না। তাই সিদ্ধান্ত নিয়ে চলতি বছরের জুন মাসে ডিভোর্স পেপার সাবমিট করি। দীর্ঘ ৯ বছর ইভা তার সন্তানকে নিয়ে কাটিয়েছেন নিঃসঙ্গতায়। সন্তান ও নিজের স্বাভাবিক ভবিষ্যৎ ভাবনাতেই বিচ্ছেদের এ সিদ্ধান্ত।

১৯ সেপ্টেম্বর ঢাকার ব্যবসায়ী সোহেল আরমানের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে ফেইসবুকে তিনি জানান, এখন থেকে তিনি ইভা আরমান। ইভা জানান, চার বছর তিনি গানের বাইরে ছিলেন। তবে শিগগিরই গানে নিয়মিত হতে চান। বিগত বছরগুলোতে ‘মনের না বলা কথা’, ‘মন ভেসে যায়’,

‘মন জোনাকি’সহ ২৪টি অ্যালবাম প্রকাশ করেছেন এ শিল্পী; পাশাপাশি বিভিন্ন উৎসবে টেলিভিশনের আয়োজনে গাইতে দেখা যায় তাকে।

Check Also

সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার বাবা

ঘটনাটা মাত্র সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার। এই পাঁচ ঘণ্টার ঘটনা লিখতেই যখন এত শব্দ লাগল, তাহলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.