ঘরে সাউন্ডবক্স বাজিয়ে স্ত্রী গায়ে আগুন দিল ইমাম

বিশ্বের যেসব দেশে স্বামী বা সঙ্গীর হাতে নারী নির্যাতনের হার বেশি, সেসব দেশের তালিকায় এসেছে বাংলাদেশের নাম। দেশের ১৫ থেকে ৪৯ বছর বয়সী নারীদের ৫০ শতাংশই জীবনে কখনো না কখনো সঙ্গীর হাতে শারীরিক বা যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

নতুন খবর হচ্ছে, গাজীপুরের মাওয়া নতুন বাজার এলাকার ভাড়া বাসায় স্ত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে শরিফ মাহমুদ নামে ইমামের বিরুদ্ধে। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে গাজীপুরের শ্রীপুর থানায় ভুক্তভোগী তরুণীর বাবা বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

ভুক্তভোগী তরুণীর বাড়ি গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায়। স্বামী মাওলানা শরিফ মাহমুদের সঙ্গে তিনি বয়রাসালায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, পারিবারিকভাবে ২০১৯ সালের ১২ জুন গাইবান্ধা সদর উপজেলার বল্লমঝাড় এলাকায় মাওলানা শরিফ মাহমুদের সঙ্গে বিয়ে হয় ওই তরুণীর। বিয়ের পর স্ত্রীকে নিয়ে শ্রীপুরে যান শরিফ। সেখানে স্থানীয় ইয়াকুব আলী জামে মসজিদে ইমামতি শুরু করেন তিনি।

কিন্তু আর্থিক দৈন্যদশা ও পরকীয়ায় জড়িয়ে শরিফ কিছুদিন ধরে স্ত্রীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছিলেন। গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে স্ত্রীর কাছে এক লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন শরিফ।

এ সময় টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে পরকীয়ার ঘটনা বলায় স্ত্রীকে তিনি মারধর শুরু করেন। এরপর রাত ৩টার দিকে উচ্চস্বরে সাউন্ডবক্সে ওয়াজ বাজিয়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

পরে তরুণীর চিৎকারে পাশের রুমের এক নারী এসে প্রতিবেশীদের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে। ঘটনার রাতে মোবাইলে খবর পেয়ে গাইবান্ধা থেকে অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে মেয়েকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান বাবা। বর্তমানে তিনি হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন।

আরো পড়ুনঃ পাঞ্জাবির ময়লা পরিষ্কারের নাম করে বৃদ্ধের লাখ টাকা নিয়ে উধাও

পাঞ্জাবির ময়লা পরিষ্কারের নাম করে আকরাম হোসেন নামে এক বৃদ্ধের কাছ থেকে এক লাখ টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে ২ প্রতারক। শনিবার ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলা নান্দাইল বাজারে একটি সরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকের শাখা সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নান্দাইল মডেল থানায় অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ভাটিসাভার গ্রামের বাসিন্দা আকরাম হোসেন একটি সরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে এক লাখ টাকা উত্তোলন করে বের হন। টাকা নিয়ে দুধমহাল নামক স্থানে আসার পর দুই যুবক ওই বৃদ্ধকে বলে চাচা আপনার পাঞ্জাবিতে ময়লা পড়েছে (মানুষের পায়খানা)। এ কথা বলে ময়লা পরিষ্কার করে দেওয়ার জন্য নলকূপের কাছে নিয়ে যায় ওই বৃদ্ধকে।

এক যুবক পাঞ্জাবিতে লাগানো ময়লা পরিষ্কার করতে থাকে। এ সময় সঙ্গে থাকা যুবক এক লাখ টাকার বান্ডেল নিয়ে সরে যায়। বৃদ্ধ ১০-১৫ মিনিট পর বিষয়টি বুঝতে পেরে কান্না শুরু করলে আশপাশের লোকজন এসে বিষয়টি জানতে পারেন। এ সুযোগে অপর যুবকও পালিয়ে যায়।

উক্ত বিষয়ে নান্দাইল মডেল থানায় অজ্ঞাত যুবকদের নামে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী।

নান্দাইল মডেল থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করে তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নান্দাইল ব্যাংকের আশপাশে মাঝে মধ্যেই এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে বলে অভিযোগ রয়েছে।

ওই ব্যাংকের ম্যানেজার ব্যাংক থেকে ১ লাখ টাকা উত্তোলনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Check Also

কলেজ অধ্যক্ষকে নেতার চড় মারার মুহূর্ত ধরা পড়ল ক্যামেরায়

কলেজ অধ্যক্ষকে চড় মারছিলেন এক নেতা। একবার নয়, একাধিকবার। আর সেই মুহূর্তটি ধরা পড়েছে ক্যামেরায়। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.