মুস্তাফিজ ও নিজের ভালো পারফরম্যান্সের পরেও হারের কারণ ব্যাখ্যা অধিনায়ক স্যমসনের

মুস্তাফিজুর রহমান ও সাঞ্জু স্যামসনের দারুন প্রচেষ্টা সত্বেও শেষ পর্যন্ত দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ৩৩ রানে হেরে গেছে রাজস্থান রয়্যালস।

এই হারে ৬ষ্ঠ স্থানে নেমে গেছে মুস্তাফিজের দল, অন্যদিকে ৮ জয়ে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে ওঠার পাশাপাশি প্রায় নিশ্চিত করলো কোয়ালিফাই।

টসে জিতে ফিল্ডিং নেয় রাজস্থান রয়্যালস। শুরু টা দারুন হয় স্যামসন বাহিনীর। শুরুতেই দুই উইকেট তুলে নেয় তাদের। তবে পান্ট ও আইয়ারের দৃঢ়তায় ভালো সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যায় দিল্লি।

শেষ দিকে হিটমায়ারের ঝড়ো ইনিংস তাদের শেষ পর্যন্ত এনে দেয় ১৫৪ রানের সংগ্রহ। ৪ ওভারে কোন বাউন্ডারি না হজম করে দুই উইকেট নেন মুস্তাফিজ।

ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পরে রাজস্থান। অধিনায়কের ৭০ ছাড়া কেউই তাড়া করার মত রান তুলতে পারেন নি। তাতে শেষ পর্যন্ত তারা ম্যাচ টি হেরে যায় ৩৩ রানে।

ম্যাচ শেষে কথা বলেন অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসন। তিনি মনে করেছিলেন ম্যাচ টা তাদের জন্য লক্ষ্য তাড়া করে জেতার মত ছিল।

এই নিয়ে তিনি বলেন ‘আমাদের যেমন ব্যাটসম্যান রয়েছে, তাতে ১৫৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করে যেতা সম্ভব হওয়ার কথা ছিল। আমাদের তেমনই ব্যাটসম্যান ছিল যারা এটা করতে পারে।’

তবে হেরে গিয়ে হতাশার চেয়ে পরের ম্যাচে আরও শক্ত ভাবে ফেরার প্রত্যয় জানান তিনি। আবেগ ঝেড়ে পরবর্তী দিনের জন্য প্রস্তুত হবেন বলে জানান স্যামসন।

তিনি আরও যোগ করেন ‘আমি মনে করি আগামী ম্যাচে আমরা আরও শক্তিশালী হয়ে মাঠে ফিরবো। আবেগ দূরে সরিয়ে রেখে আগামী দিনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করতে হবে।’

পিচ কে অবশ্য তেমন সমস্যা দেখেন নি তিনি। তিনি মনে করেছিলেন তাদের যেই ব্যাটিং রয়েছে, যদি আর কিছু উইকেট থাকত তবে এই ম্যাচ জয় সম্ভব হত।

Check Also

এবার ম্যারাডোনার ১৯৮৬ বিশ্বকাপ ফাইনালের জার্সিও নিলামে

রেকর্ডটার এখনো দুই মাসও হয়নি। ক্রীড়াঙ্গনের স্মারক বিক্রির সব রেকর্ড ভেঙে প্রায় ৯০ লাখ ডলারে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.