Breaking News

অধিনায়ক স্যামসনকে ২৪ লাখ টাকা জরিমানা, মোস্তাফিজের ৬ লাখ টাকা

পরাজয়ের ম্যাচে দুঃসংবাদ পেল রাজস্থান রয়েলস। দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ১৫৫ রানের টার্গেট তাড়ায় ৩৩ রানে হেরে যায় রাজস্থান।

শনিবার দুবাইয়ের শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে স্লো ওভার রেটের কারণে অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসনসহ রাজস্থান রয়েলসের সব ক্রিকেটারকে জরিমানা করা হয়েছে।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বোলিং কোটা শেষ করতে পারেনি রাজস্থান। স্লো ওভার রেটের দায়ে অধিনায়ক স্যামসনের বড় অঙ্কের আর্থিক জরিমানা করা হয়।

চলতি মৌসুমে রাজস্থান রয়েলসের এটি দ্বিতীয় স্লো ওভার রেটের অপরাধ, তাই অধিনায়ক স্যামসনকে ২৪ লাখ টাকা জরিমানা দিতে হবে।
এছাড়া রাজস্থান রয়েলসের প্রত্যেক ক্রিকেটারকে ৬ লাখ টাকা করে অথবা ম্যাচ ফির ২৫ শতাংশ জরিমানা দিতে হবে।

আরো পড়ুন :মোস্তাফিজদের হারের কারণ জানালেন সাঙ্গাকারা
পাঞ্জাব কিংসের বিপক্ষে আগের ম্যাচে ভালো বোলিং করলেও উইকেট পাননি মোস্তাফিজুর রহমান। শনিবার দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে আরও দুর্দান্ত বোলিং করে চার ওভারে মাত্র ২২ রানে ২ উইকেট নিয়ে সেই অতৃপ্তি ঘুচালেন রাজস্থান রয়্যালসের বাংলাদেশি কাটার মাস্টার।

তবে দিনশেষে বিফলে গেছে কার্টার মাস্টারের দারুণ বোলিং। আবুধাবিতে কাল মোস্তাফিজের রাজস্থানকে ৩৩ রানে হারিয়ে ১০ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে আইপিএলের শীর্ষে উঠে এসেছে দিল্লি।

মোস্তাফিজদের এই হারের কারণ ব্যাখ্যা করলেন রাজস্থানের ক্রিকেট ডিরেক্টর ও লংকান কিংবদন্তি কুমার সাঙ্গাকারা। ব্যাটসম্যানদের অসতর্কতাকেই দায়ী করেছেন তিনি।

বলেছেন, ‘১৫৪ রানে দিল্লিকে আটকে দেওয়া দারুণ ব্যাপার। আমাদের প্রথম ১০ ওভারে অসতর্ক না হয়ে ব্যাটিং করলেই হতো। দুর্ভাগ্যবশত দিল্লি আমাদের চেপে ধরেছিল। তারা মাথা খাটিয়ে বল করেছে, আমরা সেটি পার করতে পারিনি। ১৫৫ রানের লক্ষ্য আমাদের তাড়া করা উচিত ছিল।’

তবে দলের লোয়ার মিডল অর্ডার নিয়ে চিন্তিত নন বলে জানান সাঙ্গাকারা। বললেন, ‘লোয়ার মিডল অর্ডার আমাদের আইপিএলের প্রথম অংশে অনেক কিছু এনে দিয়েছিল। আমি নিশ্চিত তারা আরও অনেক কিছু এনে দেবে। নির্দিষ্ট দিনে আমরা যথেষ্ট ভালো ছিলাম না।’

বোলারদের অবদানে দিল্লি এ জয় পেয়েছে বলেও মনে করেন সাঙ্গা। বলেন, ‘দিল্লির বোলাররা বুদ্ধিদীপ্ত বল করেছে। দলের অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন দুর্দান্ত ব্যাট করছিল। আর কেউ তাকে সঙ্গ দিতে পারেনি। নিয়মিত উইকেট খুইয়েছে দিল্লির বোলারদের তোপে। আর দিল্লির বোলাররা সঞ্জুকে হাত খুলে খেলতে দেয়নি। সঞ্জুর শক্তিশালী পয়েন্টে বল ফেলেনি তারা।’

প্রসঙ্গত আগে ব্যাট করে শ্রেয়াস আয়ারের ৪৩ রানের লড়াইয়ে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৪ রানের পুঁজি পায় দিল্লি।

জবাবে অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসনের ৫৩ বলে ৭০* রানের দুর্দান্ত ইনিংসের পরও ১২১ রানে থমকে যায় রাজস্থান।

তথ্যসূত্র: এনডিটিভি

Check Also

এবার ম্যারাডোনার ১৯৮৬ বিশ্বকাপ ফাইনালের জার্সিও নিলামে

রেকর্ডটার এখনো দুই মাসও হয়নি। ক্রীড়াঙ্গনের স্মারক বিক্রির সব রেকর্ড ভেঙে প্রায় ৯০ লাখ ডলারে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.