মুফতি ইব্রাহীম আটক

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বিতর্কিত বক্তব্যর জন্য আলোচিত-সমালোচিত ইসলামি আলোচক মুফতি কাজী ইব্রাহিমকে আটক করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাত দুইটার দিকে রাজধানীর লালমাটিয়ার জাকির হোসেন রোডের বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশের কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার। তিনি বলেন, তাকে আটক করে ডিবি কার্যালয়ে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে, জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ঠিক কী কারণে তাকে ডিবি পুলিশ আটক করেছে জানতে চাইলে হাফিজ আক্তার বলেন, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে পরে আপনাদের জানানো হবে। ডিবি পুলিশের একটি সূত্র জানায়, মুফতি ইব্রাহীম ফেসবুক, ইউটিউবসহ তার ওয়াজে উল্টাপাল্টা কথা বলে আসছেন। যা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা, বিতর্ক হচ্ছে। সেসব বিষয় যাচাই-বাছাই করতে তাকে আজ ডিবি হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এর আগে, সোমবার রাতে তার বাসায় ডিবি পুলিশের উপস্থিতির খবরে ফেসবুক লাইভে এসে ‘র’ এর এজেন্ট, গুণ্ডা ডিবি পুলিশ তার বাসা ঘেরাও করেছে বলে অভিযোগ তুলে ২০ মিনিটের বেশি সময় লাইভে কথা বলেন মুফতি ইব্রাহীম।

উল্লেখ্য, তার (মুফতি ইব্রাহীম) বক্তব্যের অনেক ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে অনেক। তিনি করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কারের সূত্র দেওয়া থেকে শুরু করে বিজ্ঞানসহ নানা বিষয়ে ওয়াজ করেছেন।

কে এই মুফতি ইব্রাহীম?

কালের কণ্ঠের এক সাক্ষাৎকারে ইব্রাহিম বলেছিলেন, আমি আসলে একা। আমি সারাজীবন একা একজন মানুষ। আমি কোনো দলে নাই, রাজনীতি করি নাই কখনো। যদি এক কথা বলি আমি একজন কিতাবি মানুষ।

আমার দাদা ছিলেন নোয়াখালীর আলিয়া মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল। কলকাতা আলিয়ার বড় ডিগ্রিধারী। হাটহাজারী মাদরাসার উৎপত্তি হয়েছে আমার নানাকে দিয়ে। আমার নানা সারাজীবন হাটহাজারী মাদরাসার মজলিসে শুরা সদস্য ছিলেন। আমার মামা মুফতি আব্দুল মুইযকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বায়তুল মোকাররম মসজিদের প্রথম খতিব হিসেবে নিয়োগ দেন।

লালবাগ মাদরাসার মুফতি ছিলেন মামা। বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতাপরবর্তী সময় মামাকে নিয়ে এসে বায়তুল মোকাররম মসজিদের খতিব হিসেবে নিয়োগ দেন। স্বাধীন বাংলার বায়তুল মোকাররমের প্রথম খতিব তিনি। আমরণ খতিব ছিলেন বায়তুল মোকাররমে।

বায়তুল মোকাররমের বর্তমান খতিব সালাহুদ্দিন সাহেব ইনি আমার বাবার ছাত্র ছিলেন। খুবই প্রিয় ছাত্র ছিলেন। আমরা ৩০o বছর থেকে ধর্মীয় শিক্ষা, ধর্মীয় দাওয়াত এসব কাজে নিয়োজিত আছি।

তিনি বলেন, আমার নিজের গড়া মাদরাসায় সময় দেই। গাজীপুরে একটা মাদরাসা আছে। দক্ষিণখানে নির্মাণাধীন মাদরাসা রয়েছে। আমার ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল আছে, তিনটা শাখা। এভারোস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল। যেখানে সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের ছেলেমেয়েরা পড়ে।

Check Also

সিলেটে পানি কমছে, তবে ছড়িয়ে পড়েছে দুর্গন্ধ

সিলেট নগর ও এর আশপাশের এলাকায় বন্যার পানি অনেকটাই কমেছে। তবে এখন রাস্তাঘাটে জমে থাকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.