Breaking News

বিয়েতে রাজি না হওয়ায় রড দিয়ে পিটিয়ে ও এসিডে ঝলসেখু\’ন

বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় যশোরের অভয়নগর উপজেলায় কেয়া খাতুন (২৮) নামের নারী শ্রমিককে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করে তার শরীরে এসিড ঢেলে দিয়ে মেরে ফেললেন অপর শ্রমিক শামীম হোসেন (৩৫)।

সোমবার দুপুরে টিফিনের সময় এসএএফ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড মিলের অভ্যন্তরে এ ঘটনাটি ঘটে।

এসএএফ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড মিলে টিফিনের সময় বসে থাকা কেয়াকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করে তার শরীরে এসিড নিক্ষেপ করে শামীম হোসেন। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে খুলনা আদদ্বীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

পুলিশ বিষয়টি জানার পর উপজেলার তালতলা মাইলপোস্ট এলাকার খন্দকার মোশারফ হোসেনের ছেলে ঘাতক শামীম হোসেনকে আটক করেছে।

নিহত কেয়া খাতুন উপজেলার কাদিরপাড়া গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে।

অভয়নগর থানার এসআই গৌতম জানান, প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে, পরকীয়া প্রেমের জের ধরে বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কেয়া খাতুনকে হত্যা করা হয়েছে। আসামিকে আটক করে মামলার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Check Also

কলেজ অধ্যক্ষকে নেতার চড় মারার মুহূর্ত ধরা পড়ল ক্যামেরায়

কলেজ অধ্যক্ষকে চড় মারছিলেন এক নেতা। একবার নয়, একাধিকবার। আর সেই মুহূর্তটি ধরা পড়েছে ক্যামেরায়। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.