Breaking News

পাকিস্তানকে সমর্থন করায় স্কুল শিক্ষক বরখাস্ত

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো পাকিস্তানের জয় উদযাপন করায় রাজস্থানে বেসরকারি স্কুলের এক নারী শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে।

গত রোববার (২৪ অক্টোবর) ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পাকিস্তানের জয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে স্ট্যাটাস দেওয়ায় তাকে বরখাস্ত করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো গত রোববার ভারতকে হারিয়ে ইতিহাস গড়েছে পাকিস্তান। কাশ্মির মিডিয়া সার্ভিসের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,

পাকিস্তানের জয় উদযাপন করায় রাজস্থানের উদয়পুরের নীরজা মোদি স্কুল থেকে নাফিসা আত্তারি নামের ওই স্কুল শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে। তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপে ওই স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন।

দুবাইয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বহুল আলোচিত ম্যাচে পাকিস্তান ভারতকে হারানোর কিছুক্ষণের মধ্যে ‘জিত গেইই… আমরা জিতেছি’ লিখে হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস দেওয়ার পরপরই স্কুল প্রশাসনের ক্ষোভের মুখে পড়েন ওই শিক্ষক।

এছাড়া ওই ম্যাচের পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের কয়েকটি ছবিও আপলোড করেন তিনি। যেখানে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের জয় উদযাপন করতে দেখা যায়।

আরও পড়ুনঃ ধর্ষণ মামলায় একজনের চল্লিশ বছরের কারাদণ্ড

ইন্ডিয়া টুডে বলছে, স্কুলের একজন শিক্ষার্থীর অভিভাবক নাফিসা আত্তারির কাছে পাকিস্তান সমর্থন করেন কি-না জানতে চাইলে তিনি সাফ ‘হ্যাঁ’ জানিয়ে দেন। পরে শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্টাটাসটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়লে স্কুলের ব্যবস্থাপনা
কর্তৃপক্ষ তাকে বরখাস্ত করে।

দক্ষিণ আফ্রিকার টার্গেট ১৪৪ রান

ব্যাটিং অর্ডারে হার্ড হিটারের উপস্থিতির প্রাবল্যে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর স্কোয়াড হলেও মাঠের খেলায় তার প্রতিফলন এখনও সেভাবে রাখতে পারছে না ওয়েস্ট ইন্ডিজ। গেইল-পোলার্ড-রাসেলদের ব্যাটিং ব্যর্থতায় দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে ১৪৪ এর বেশি রান টার্গেট দিতে ব্যর্থ হয়েছে ক্যারিবিয়ানরা।

অথচ এভিন লুইসের ব্যাটিং নৈপুণ্যে ২২ গজে আধিপত্যের ইঙ্গিতই দিয়েছিল উইন্ডিজ। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নতুন বল পার করে তারা কোনো উইকেট না হারিয়েই। এমনকি পাওয়ার প্লে শেষে ক্যারিবিয়ানদের ইনিংস ছিল অক্ষত। তবে লেন্ডল সিমন্সের মন্থর ব্যাটিংয়ে এভিন লুইসের মারাকাটারি উইলোবাজির শতভাগ সুবিধা ঘরে তুলতে পারেনি পোলার্ডের দল। লুইসের ৩৫ বলে ৫৬ রানের বিপরীত চিত্র তুলে ধরে সিমন্স আউট হন ৩৫ বলে মাত্র ১৬ রান করে। এরপর গেইল, গেইল, পুরান, রাসেল, হেটমায়াররা পারেননি তাদের হার্ড হিটার পরিচয়কে মাঠে অনূদিত করতে। উল্টো আইনরিখ নকিয়ার ১৪৮ কিলোমিটার/ঘণ্টার গোলার স্ট্যাম্প উড়ে যায় রাসেলের। প্রিটোরিয়াসের স্লোয়ারে বিভ্রান্ত হয়ে ফিরে গেছেন গেইল।

শেষদিকে আসা-যাওয়ার মিছিলের ফাঁকে কাইরন পোলার্ডের ২৬ রান না এলে লড়াইয়েও পুঁজিও হয়তো পেতো না উইন্ডিজ। শেষ পর্যন্ত প্রিটোরিয়াস আর নকিয়ার দক্ষতায় ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান সংগ্রহ করতে সমর্থ হয় ক্যারিবিয়ানরা।

Check Also

নেইমারের চাওয়া, ব্রাজিলের ১০ নম্বর উঠুক রদ্রিগোর গায়ে

কাতার বিশ্বকাপে ব্রাজিলের ফরোয়ার্ড লাইনটা একটু ভেবে দেখুন—নেইমারের সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদের জুটি রদ্রিগো ও ভিনিসিয়ুস …

Leave a Reply

Your email address will not be published.