একই সময়ে স্বামীর প্রা’ণ গেল ঘরে, স্ত্রীর পুকুরে

রাজশাহীর বাঘায় একই দিনে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে স্ত্রী জাহিদা বেগম (৯০) বাড়ির পাশে পুকুরের পানিতে ডুবে এবং স্বামী মোজাহার মণ্ডল (১০০) স্বাভাবিকভাবে মৃত্যু হয়েছে নিজ ঘরে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দুপুরে উপজেলার আড়ানী ইউনিয়নের সোনাদহ গ্রামে।

জানা যায়, জাহিদা বেগম ভারসাম্যহীন হয়ে দীর্ঘদিন পড়েছিলেন। কোনো কোনো সময়ে হামাগুড়ি দিয়ে বাড়ির বাইরে যান। শনিবার দুপুরে হামাগুড়ি দিয়ে বাড়ির পাশে পরিবারের অজান্তে পুকুরে পড়ে মৃত্যু হয়। মোজাহার মণ্ডল বয়সের ভারে বিছানায় অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। পরিবারের অজান্তে তিনিও মারা যান।

 

এদিকে ৩০ বছর আগে মোজাহার মণ্ডলের বাবা-মায়েরও একই দিনে স্বাভাবিকভাবে মৃত্যু হয়েছিল বলে স্থানীয়রা জানান।

এ বিষয়ে বৃদ্ধের ছেলে জালাল উদ্দিন বলেন, সাত বছর যাবৎ আমার বাবা ও মা দূরারোগ্য ব্যাধিতে ভুগছিলেন। মা-বাবা একই ঘরে থাকতেন।

দুপুরে বিছানায় কম্বল তুলে দেখছি বাবা মারা গেছেন। আর মাকে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে বাড়ির পাশের পুকুরে পানির মধ্যে ডুবে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

আড়ানী ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বর ও সোনাদহ গ্রামের সলিম উদ্দিন বলেন, প্রায় ৩০ বছর আগে মোজাহার মণ্ডলের বাবা-মায়ের একই দিনে স্বাভাবিকভাবে মৃত্যু হয়েছিল।

শনিবার রাত ৯টায় সোনাহদ গ্রামে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাদের লাশ দাফন করা হয়েছে। তাদের তিন ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

এ বিষয়ে বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এ বিষয়ে কারও কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

Check Also

সিলেটে পানি কমছে, তবে ছড়িয়ে পড়েছে দুর্গন্ধ

সিলেট নগর ও এর আশপাশের এলাকায় বন্যার পানি অনেকটাই কমেছে। তবে এখন রাস্তাঘাটে জমে থাকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.