Breaking News

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ আ’মাকে নতুন জী’বন দিয়েছে : ফারিয়া শাহরিন

দেশের জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’। কাজল আরেফিন অমি পরিচালিত এ ধারাবাহিকটির কাবিলা, শুভ, হাবু ভাই, পাশা ভাই, অন্তরা নামের চরিত্রগুলোও যেন দর্শকদের কাছে জীবন্ত হয়ে উঠেছে। গত ১৩ এপ্রিল শেষ হয়েছে নাটকটির তৃতীয় সিজন। এবার নতুন সিজনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন নির্মাতা। খুব শিগগিরই আসবে চতুর্থ সিজন।

 

 

 

নাটকটির তৃতীয় সিরিজে ‘অন্তরা’ চরিত্রে অভিনয় করেছেন লাক্স তারকা ফারিয়া শাহরিন। সিজন শেষ হলেও এখনও ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’র ঘোরে আছেন এ অভিনেত্রী। দর্শকমহলে ফারিয়া এখন ‘অন্তরা’ নামেই বেশি পরিচিত।

 

গেল মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডিতে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে ফারিয়া লিখেছেন, ‘রাস্তায় বের হলেই খুব সাধারণ মানুষ যখন মাস্ক পরা অবস্থায়ও আমাকে চেনে, ‘অন্তরা’ বলে ডাক দেয়, শান্তি পাই। খুব বিধ্বস্ত অবস্থায়, এলোমেলো চুল নিয়েও ছবি তুলি। কারণ, এই মানুষটাই ওর ১০টি বন্ধুকে খুব গর্ব করে বলবে, ‘দোস্ত দেখ অন্তরার সঙ্গে ছবি তুলেছি।’ তার ওই সুখের হাসিটার কাছে আমার এলোমেলো কাজল লেপ্টে যাওয়া চেহারায় আমাকে কেমন লাগছে দেখতে, ওই ভাবনায় একদম কিছু যায় আসে না।’

 

 

 

তিনি আরও লিখেছেন, ‘কোথাও খেতে গেলে কোনো সাধারণ ওয়েটার যখন সব কাজ বাদ দিয়ে দৌড়ে আসে কাচুমাচু করে বলে আপু আপনাকে খুব ভালো লাগে, নার্ভাস হয়, আমতা আমতা করে বলতে গিয়েও সাহস পায় না, আমি হেসে বলি, কি ছবি তুলবেন? আসেন আমি সেলফি তুলি আপনার ফোনটা দিন। পাশে দাঁড়ান।’

 

 

 

এই অভিনেত্রী মনে করেন, ‘অন্তরা’ চরিত্রটি মিডিয়ায় তাকে দ্বিতীয় জীবন দিয়েছে। ফারিয়া লিখেছেন, ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট আমাকে নতুন জীবন দিয়েছে, মানুষের ভালোবাসাকে উপভোগ করতে শিখিয়েছে। যে ভালোবাসা আমি নষ্ট করতে চাই না। আমি চাই সবাই আমাকে অন্তরাই ডাকুক। মাসের ৩০ দিন কাজ করতে মন চায় না। অনেক অনেক ধারাবাহিক সম্মানের সঙ্গে না করে দেই অন্তরাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য। কাজ এখন অনেক করি, কিন্তু যে ভালোবাসা পাই, তা মাথা পেতে নেই। অন্তরা হয়ে প্রতিটা মুহূর্ত বাঁচি, উপভোগ করি। আলহামদুলিল্লাহ্। এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কিছু হতে পারে?’

Check Also

সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার বাবা

ঘটনাটা মাত্র সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার। এই পাঁচ ঘণ্টার ঘটনা লিখতেই যখন এত শব্দ লাগল, তাহলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.