Breaking News

সু’ন্দ’রী বৌ’দি ধা’নের ক্ষে’তে মাছ ধরে তাক লাগিয়ে দিল, ইন্টারনেটে তু’মুল ভা’ইরা’ল (ভি’ডিও)

গ্রামে গঞ্জে মাছ ধরার দৃশ্য আমরা সবাই দেখেছি৷ পাল তৌলা নৌকায় করে নদীতে জেলেরা মাছ ধরে। আমাদের দেশের খাল বিল নদীগুলোতে প্রচুর মাছ পাওয়া যায়। খাল বিল ছাড়াও অনেক সময় গ্রামের পুকুর ও ধানের ক্ষেত থেকেই বিভিন্ন রকমের মাছ জেলেরা ধরে থাকে৷ তাই আমাদেরকে সবাই বলে মাছে-ভাতে বাঙ্গালী। গ্রামে অনেক সময় নদীর তীর থেকে গ্রামের ছেলে পেলেরা জাল বুনে অনেক রকমের মাছ ধরে থাকে।

ছোটবেলায় ছেলে-মে’য়ে সবাই আমরা পুকুর ও নদীতে মাছ ধরে প্রচুর আনন্দ করেছি। তবে বড় হওয়ার পর মেয়েরা সাধারণত আর মাছ ধরতে নদীতে যায়না। কৈ, রুই, কাতলা, বোয়াল সহ হরেক রকমের সব মাছ ছেলেরাই ধরে থাকে।

নদী থেকে মাছ ধরার পর ছেলেরা সেগুলো বাড়িতে নিয়ে আসে। এরপর শুরু হয় মে’য়েদে’র কাজ। মে’য়ে’রা’ এরপর মাছ গুলো কাটাকাটি ও রান্না-বান্নার কাজ করে। তাই, সবাই মনে করে রান্না বান্নাই শুধু মে’য়ে’দের কাজ। মে’য়েরা’ মাছ ধরতে পারবে না।

তবে কিছুদিন আগে ইন্টারনেটে ভাই’রা’ল হওয়া একটি ভি’ডি’ওতে আমরা উলটো চিত্র দেখতে পেয়েছি। ভিডিওতে দেখা যায়, গ্রামের এক সু”ন্দ’রী বৌ’দি সবুজ ধান ক্ষেতের ভেতর দিয়ে হেটে চলেছেন৷ সেখানে ধানের ক্ষেতের আইল দিয়ে মাছের জন্য বৌ’দি জাল পেতেছেন।

বৌ’দি’র পাতা জাল বেশ লম্বা। ক্ষেতের আইল দিয়ে সু’ন্দ’রী বৌ’দি’র পাতানো এই লম্বা জালে বেশ ভাল পরিমাণে মাছও উঠেছে। বৌ’দি এই জাল থেকে একে একে মাছগুলোকে তুলে নিয়ে একটি পাত্রে জমা করে সবাইকে দেখান। এরপর বৌ’দি সবাইকে পরামর্শ দেন যে একবার মাছ তোলার পর জাল সেখানেই পেতে রাখতে হবে। তাহলে পরের বেলা আরো বেশি মাছ সেখানে আটকাবে।

গ্রামের শাড়ি পরা সু’ন্দ’রী বৌ’দি’র মাছ ধরার ভি’ডি’ও’টি ইন্টারনেটে প্রচুর ছড়িয়ে পড়েছে। দেশের সব প্রান্তেরই বেশিরভাগ ইন্টারনেট ইউজারকে বৌ’দি’র’ মাছ ধরার ভি’ডি’ও তাক লাগিয়ে দিয়েছে। তাই গ্রামের সুন্দরী বৌ’দি’র মা’ছ ধরার দৃশ্য ইন্টারনেটে দ্রুত ভাই’রা’ল হয়ে গেছে। অনেকে বৌ’দি’র এই বু’দ্ধি’কে কাজে লাগিয়ে নিজেদের গ্রামে মাছ ধরার চেষ্টা করছেন। ভি’ডিও’তে এসে সবাই বৌ’দি’কে ধন্যবাদ জানাচ্ছেন।

 

Check Also

চট্টগ্রামে পাহাড়ধস

এবার বর্ষার শুরুতে চট্টগ্রাম নগরের পাহাড়ধসে নিহত হয়েছেন পাঁচজন। কিন্তু এখনো পাহাড় কেটে পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.