হঠাৎ কলকাতায় কেন প’রী’মণি?

বিতর্ক কিছুতেই পিছু ছাড়ে না তাঁর। কিন্তু বিতর্কের চাদর গায়ে জড়াতে ভালোবাসেন না এই নায়িকা। মনের কথা মন খুলে বলেন তিনি। সোজাসাপটা জবাব দিয়ে নিন্দুকদের মুখ বন্ধ করেন। আমি আমার মতো- এটাই তাঁর জীবনের মূলমন্ত্র। বলছি ঢাকাইয়া সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা পরীমনির কথা। গত কয়েক মাস আগেই মা দ ককাণ্ডে ব়্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন পরীমনি। ২৬ দিন জেলেও কাটাতে হয়েছে তাঁকে। কিন্তু জেল থেকে ছাড়া পেয়েই পুরোদমে কাজে ফিরেছেন নায়িকা। এবার তিনি গিয়েছেন কলকাতায়।

আলোর উত্সবের মাঝেই তিলোত্তমায় পা রাখলেন পরীমনি। তাঁর দেখা মিলল হলুদ রঙা টপ আর কালো ব্রালেটে। এদিন শহরের এক পাঁচতারা হোটেল থেকে একগুচ্ছ ছবি শেয়ার করে কলকাতায় যাওয়ার  খবর শেয়ার করলেন পরীমনি

ছবির শ্যুটিং নাকি বিজ্ঞাপনী প্রচারের কাজ, কী কারণে পরীর কলকাতায় যাওয়া? তা স্পষ্ট করেননি পরীমনি। কিন্তু তাজ বেঙ্গলের সৌন্দর্যে মজেছেন নায়িকা তা স্পষ্ট অভিনেত্রীর ফেসবুক পোস্টে।

গত মাসেই জন্মদিন পালনের সময় লুঙ্গি জাতীয় পোশাক পরায় ট্রোলড হয়েছিলেন নায়িকা। তার পালটা জবাবও দিয়েছেন পরীমনি। হেটার্সদের উদ্দেশে তাঁর বার্তা- ‘আপনারা আমার সেই লুঙ্গিতেই আটকা পড়ে রইলেন! আহারে আপনাদের দিকে তাকালে নিজেকে সত্যিই বড় সুখী মনে হয়।’

উল্লেখ্য, গত ২৪ অক্টোবর ছিল পরীমণির জন্মদিন। দিনে তিনি অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সঙ্গে কেক কেটেছেন। রাত উদ্যাপন করেছেন পাঁচতারকা হোটেলে। সেখানে অতিথিদের ড্রেস কোড লাল ও সাদা রঙের পোশাক। অতিথিদের পাঠানো কার্ডে সে কথাও জানানোর পাশাপাশি অভিনেত্রী লেখেন, “বিশুদ্ধ আত্মা নিয়ে আমার কাছে এসো এবং সারাজীবন আমার সঙ্গে থেকো।”

 

 

Check Also

সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার বাবা

ঘটনাটা মাত্র সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার। এই পাঁচ ঘণ্টার ঘটনা লিখতেই যখন এত শব্দ লাগল, তাহলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.