সিঙ্গাপুরে অপুর স’ঙ্গে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সুজানা

জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাসের সঙ্গে সুজানার বন্ধুত্ব বেশ ভালো। দু’জন মিলে সিঙ্গাপুরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

ছেলে আব্রামকেও সঙ্গে নিয়ে গেছেন অপু বিশ্বাস। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তাদের

তিনজনের ঘুরে বেড়ানোর বেশ কিছু ছবি শেয়ার করেছেন সুজানা। জানা গেছে তারা দু’জন পরিকল্পনা

করে সিঙ্গাপুরে বেড়াতে এসেছে। এ ছাড়া সিঙ্গাপুরে অপুর একটা শো ছিল। তাই একই সুযোগে ঘুরে

বেড়াচ্ছেন তারা। সুজানা জানিয়েছেন, অপুর সঙ্গে দেখা হলে ব্যাপক আড্ডা হয় বলে জানিয়েছেন তিনি। দেখা হলে তাদের মধ্যে গল্প হয়।

কথা শেষ হতে চাই না। তাই আড্ডাও হচ্ছে অনেক বেশি। সুজানা গণমাধ্যমকে জানায়, আমরা পরিকল্পনা করেছি ডিসেম্বরে অপুকে নিয়ে দুবাই যাবেন । ডিসেম্বরে অপু ও আব্রাম আমার সঙ্গে দুবাই যাবে। আমরা সেখানেও অনেক ঘুরবো বেড়াবো।’

এই শহরের মানুষগুলো অনেক স্বার্থপর : মাহিয়া মাহি

বিভিন্ন সময়ে দেওয়া ফেসবুক স্ট্যাটাসে খানিকটা রহস্য জমিয়ে রাখেন সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তার সেসব স্ট্যাটাস নিয়ে আলোচনার কমতি নেই। বিয়ে-বিচ্ছেদসহ ব্যক্তি জীবনের অনেক কথাই তিনি ফেসবুকের মাধ্যমে অনুরাগীদের জানান দেন গেল শনিবার (২৩ অক্টোবর) ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে মাহি লিখেছেন- প্রিয়তম,আমাকে অনেক দূরে তারার শহরে নিয়ে চলোনা…এই শহরের মানুষগুলো অনেক স্বার্থপর।

বড্ড বেশি চতুর। তুমি সবার থেকে আলাদা। আমি জানি, আমি তোমাকে কোনদিন ভালো না বাসলেও তুমি আমাকে নিঃস্বার্থভাবে ভালোবাসবে, আমাকে আগলে রাখবে, সম্মান করবে। নিয়ে চলোনা । মাহির সেই পোস্টে তার স্বামী রাকিব সরকার লিখেছেন, ‘চলো’ (সঙ্গে লাভের ইমজি)।

তবে শুধু রাকিব নয়, মাহির ভক্তরাও প্রিয় নায়িকার সঙ্গে তাল মিলিয়েছেন। কেউ কেউ তাদের ভালোবাসার কথা জানিয়েছেন। ওয়াসিম রানা লিখেছেন, ‘শহরের সব মানুষ স্বার্থপর না আপু, শহরে এখনও কিছু মানুষ আপনার আশে পাশে আছে, যারা নিঃস্বার্থভাবে আপনাকে ভালোবাসে। তারা এখনও আপনার বিপদ-আপদে পাশে থাকার জন্য চটপট করে।

আর যারা স্বার্থপর, আমি মনে করি তাদের কাছ থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। এতে অনেক ভালো হবে নিজের। স্বার্থপর মানুষগুলো কখনও অন্যের ভালো চায় না। ওদের কাছ থেকে ভালো কিছু আশাও করা যায় না। বেঁচে থাকুক সব স্বার্থহীন ভালোবাসা সবার মাঝে।’ ইয়াসমিন জান্নাত লিখেছেন, ‘সবাই না, কিছু মানুষ। সেই মানুষগুলোই স্বার্থপর, যাদের তুমি দেখেছ।

কিন্তু যাদের দেখোনি, তারা নয়। মানুষ সামাজিক জীব, নিয়মের বাইরে কেউ যেতে পারেনা।’ তবে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সাক্ষাৎকারে বিভিন্ন সময়ে দেওয়া ফেসবুক স্ট্যাটাস প্রসঙ্গে মাহি জানান, ‘আমি লিখতে পছন্দ করি। একটা সুন্দর কথা মনে হলে সেটা লিখে রাখি। রোমান্টিক কথা লিখতে বেশি পছন্দ করি।’

Check Also

সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার বাবা

ঘটনাটা মাত্র সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার। এই পাঁচ ঘণ্টার ঘটনা লিখতেই যখন এত শব্দ লাগল, তাহলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.