Breaking News

লাঙ্গল দিয়ে ডুবিয়ে দিল বড় ভাইয়ের নৌকা

কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে উপজেলার দিগদাইড় ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাপ হোসেন ভূঁইয়াকে ১৬৯ ভোটে ডুবিয়ে সহোদর ছোটভাই আশরাফ উদ্দিন ভূঁইয়া জাতীয় পার্টি মনোনীত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাতে তাকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয় বলে জানান কিশোরগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আশ্রাফুল আলম। গতকাল দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে কিশোরগঞ্জের তিনটি উপজেলার ২৯ ইউপিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে এ ভোট শুরু হয়ে চলে বিকল ৪টা পর্যন্ত। দুই ভাইয়ের এ ভোটযুদ্ধ নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে ব্যাপক কৌতূহল সৃষ্টি হয়েছিল। পাড়া-মহল্লার চায়ের আড্ডায় ছিল শুধু দুই ভাইয়ের চেয়ারম্যান পদে

প্রতিদ্বন্দ্বিতা নিয়ে এবং হারজিত নিয়ে নানা মুখরোচক আলোচনা। এলাকাবাসী জানান, দুই ভাইয়ের মধ্যে চেয়ারম্যান হওয়ার লড়াইয়ে শুরু থেকেই ছিল বেশ উত্তেজনা। নির্বাচনে দুই ভাই কেউই কাউকে ছাড় দেয়নি।

ইউনিয়নবাসীও তাদের লড়াই উপভোগ করেছেন। সেই জন্য সাধারণ ভোটারদের বাড়তি নজর ছিল দিগদাইড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ঘিরে। তবে একই পরিবার থেকে দুই ভাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় বিপাকে পড়েছিলেন পরিবারের লোকজন,

আত্মীয়-স্বজন ও পাড়া-প্রতিবেশীরা। জাতীয় পার্টি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আশরাফ উদ্দীন ভূঁইয়া (আসাদ) বলেন, দিগদাইড় ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের ভোটে আমি লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছি।

ইউনিয়নবাসী বিপুল ভোটে আমাকে নির্বাচিত করায় তাদের জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে ধন্যবাদ। তাড়াইল উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, দিগদাইড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী। এদের মধ্যে জাতীয় পার্টি মনোনীত লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে আশরাফ উদ্দিন ভূঁইয়া (আসাদ) ৩ হাজার ৮৯১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তার সহোদর বড়ভাই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গোলাপ হোসেন ভূঁইয়া নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ হাজার ৭২২ ভোট। এতে বড়ভাইকে ১৬৯ ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন ছোটভাই আশরাফ উদ্দিন ভূঁইয়া (আসাদ)। এছাড়াও অন্য প্রার্থীদের মধ্যে মো. জিল্লুর রহমান স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৩ হাজার ৪১৫ ভোট, আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী স্বপন আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ৭৭৪ ভোট ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত মোহাম্মদ দিলওয়ার হোসেন (হাতপাখা) প্রতীকে পেয়েছেন ৩৫৯ ভোট।

Check Also

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেলেন বিএনপির ৭ নেতা

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নিতে বিএনপির সাত নেতাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে সরকারের সড়ক পরিবহন ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published.