Breaking News

দুই কারণে পেছালো চাঁদে মানুষ পাঠানোর অভিযান


চাঁদের বুকে শেষবার মানুষ নেমেছিল ১৯৭২ সালে। মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসার সেই শেষ মুন মিশনে ছিলেন তিনজন নভোচারী। এরপর বহু চেষ্টার পরও সফল হয়নি কোনো মুন মিশন। ২০২৪ সালে চাঁদে মানুষ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিলেও, তা এক বছর পেছানো হয়েছে।

নাসার প্রধান বিল নেলসন এক সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা করেছেন যে এটা এখন এক বছর দেরি করা হবে। মূলত অর্থের ঘাটতি আর অবতরণ যান নিয়ে কিছু আইনি জটিলতা কাটিয়ে উঠতে না পেরেই ২০২৫ সাল পর্যন্ত গড়িয়েছে এই মিশন।

আইনি জটিলতার বিষয়টি এই মিশনের শুরুতে মূখ্য সমস্যা হয়ে উঠেছে। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোসের কারণে। নাসা এই মিশনে চাঁদে নামার জন্য অবতরণ যানটি তৈরির চুক্তি ইলন মাস্কের স্পেস এক্স সংস্থাকে দেওয়ার সিদ্ধান্তকে আদালতে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন।

স্পেস এক্স-এর সঙ্গে নাসার এই চুক্তির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বেজোসের আপত্তির আংশিক কারণ ছিল, এই কাজের জন্য দরপত্র একাধিক সংস্থার জন্য উন্মুক্ত করা হয়নি। বেজোসের কোম্পানি ব্লু অরিজিন এই গৌরবময় চন্দ্রাভিযানের জন্য অবতরণ যান তৈরির চুক্তি পেতে আরও তিনটি এয়ারোস্পেস সংস্থার সঙ্গে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে দরপত্র দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিল। কিন্তু যথেষ্ট অর্থ বরাদ্দ করতে না পারায় তারা দরপত্র ডাকার প্রক্রিয়ায় যায়নি নাসা।

চাঁদে প্রথমবারের মতো নারী নভোচারী

 

আর্টেমিস প্রকল্পের অংশ হিসাবে প্রথম চন্দ্রাভিযানে নভোযান উড়বে আগামী বছর ফেব্রুয়ারি মাসে। নাসা এতে তার শক্তিশালী স্পেস লঞ্চ সিস্টেম-এর (এসএলএস) রকেট ব্যবহার করে মানুষ বিহীন ওরিয়ন মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করবে।

এটিই প্রথম ‘মুন মিশন’, যেটাতে নাসা প্রথম বারের মত পাঠাবে তাদের একজন নারী নভোচারীকে। যে পুরুষ নভোচারী থাকবেন, তিনি হবেন চাঁদের বুকে পা রাখা ১৩তম মানুষ। এই অভিযানে প্রথমবারের মত অশ্বেতাঙ্গ একজন নভোচারীকে চাঁদে পাঠানো হবে। তবে তিনি আর্টেমিস-৩ নভোযানে থাকবেন না কি এই প্রকল্পের পরবর্তী কোন মিশনে চাঁদে নামবেন তা এখনও স্পষ্ট করা হয়নি।

Check Also

বন্যাদুর্গত মানুষের সহায়তায় ২ কোটি ২৮ লাখ টাকা দিল যুক্তরাষ্ট্র

দেশের বন্যাদুর্গত এলাকার মানুষের সহায়তা হিসেবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা (ইউএসএআইডি) জরুরিভাবে ২ কোটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.