সিঁধেল চু’রের আ’ত’ঙ্কে গ্রামবাসী, বাদ যায়নি মসজিদও

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার গারিদহ ইউনিয়নের বোঙ্গা ও কালশিমাটি গ্রামের ১৫টি বাড়িতে ১৫ দিনে চুরির ঘটনা ঘটেছে। বাদ যায়নি মসজিদও। এ সময় চোরেরা স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। আতঙ্কে বসে আছে এলাকাবাসী। তবে এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।








স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সংঘবদ্ধ চোরদল উপজেলার গারিদহ ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের বাড়িতে বাড়িতে অভিযান চালায়। ডাকাতরা ঘরে ঢুকে নগদ টাকাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। এ সময় পরিবারের লোকজন চিৎকার করলে তারা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে পাশের এলাকায় গিয়ে আবার চুরি করে।








কথা হয় কালশিমাটি গ্রামের শহিদুল ইসলাম তুহিনের স্ত্রী রুমানার সঙ্গে। তিনি বলেন, আমি আমার মায়ের বাড়িতে রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম এবং সকালে আমাকে জানানো হয়। তোমার বাড়িতে চুরি হয়েছে। আমার নগদ টাকা একই এলাকার হারুন জানান, সে বাড়িতে ভাঙচুর করেছে। আমরা জেগে উঠলে চোর পালিয়ে যায়। সকালে শুনলাম পাশের এলাকায় চুরি হয়েছে।








শফিকুর ইসলাম ফিদ্দু, ইয়াছিন, সায়েম ও ইসলামাইল জানান, প্রায় প্রতিদিনই এ এলাকায় চুরির ঘটনা ঘটছে। আমরা আতঙ্কে রাত কাটাচ্ছি। যেদিন কালশীমতি এলাকা থেকে পূর্বপাড়া মসজিদের মেশিন চুরি করতে না পেরে চুরি করে।

বনগামের মহিদুল ইসলাম বলেন, আমার বাসা থেকে ৪টি মোবাইল চুরি হয়েছে। তারা দামি পায়ের পাতা ও নগদ টাকাও নিয়ে গেছে। বোঙ্গা পশ্চিম পাড়া এলাকার আরিফুল ইসলাম জানান, আমার বাড়িসহ এ এলাকার প্রায় ৫টি বাড়িতে এক রাতে চুরি হয়েছে। এতে কিছু টাকা ও মূল্যবান জিনিসপত্র লেগেছে।

মাবিয়া, কুলছুম বেগম বলেন, “সিন্ধুতে প্রতিদিন ডাকাতি হওয়ার ভয়ে আতঙ্কিত হয়েছি এবং রাতে বলছি এলাকায় চুরি বেড়েছে। ওই রাতে সে আমার বাড়িতে চুরি করতে আসছিল। পরে আমরা ঘুম থেকে উঠলে চোর পালিয়ে যায়। তবে দেয়ালে এখনো গর্ত আছে।

Check Also

গৃহবধূকে নিয়ে লাপাত্তা স্কুলছাত্র

রাজশাহীর তানোরে গৃহবধূকে নিয়ে পালিয়েছে নবম শ্রেণীর এক ছাত্র। ঘটনার এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও সন্ধান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.